NEWS, আইন ও আদালত, ঢাকা, বি এন পি

জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কঠোর আন্দোলনে নামতে হবে-মির্জা ফখরুল

%e0%a6%9c%e0%a6%a8%e0%a6%97%e0%a6%a3%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%b8%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97%e0%a7%87-%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a7%9f%e0%a7%87-%e0%a6%95%e0%a6%a0%e0%a7%8b%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%a8

(কামরূল ইসালাম)  বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, গণতন্ত্রকে বিসর্জন দিয়ে সরকার ‘একদলীয় ব্যবস্থা’ পুনঃপ্রবর্তনের চক্রান্ত করছে , বারবার বিএনপিকে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র হয়েছে। কিন্তু সব বাধা-বিপত্তি অতিক্রম করে বিএনপি ঠিকই উঠে দাঁড়িয়েছে। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে, গণতন্ত্রকে মুক্ত করে বিএনপি উঠে দাঁড়াতে সক্ষম হবে- এটা আমরা মনে প্রাণে বিশ্বাস করি। দেশনেত্রী খালেদা জিয়া মুক্তিই আমাদের কাছে প্রধান দায়িত্ব ও কর্তব্য।

আমরা দেশের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে কঠোর আন্দোলনে নামতে হবে। বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।
খালেদা জিয়ার অবৈধ সাজা বাতিল ও নিঃশর্ত মুক্তি এবং তারেক রহমানের সাজা বাতিল ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে’ সমাবেশের আয়োজন করে ‘নব্বইয়ের ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য’। মির্জা ফখরুল বলেন, আজ দেশে যে সংকট, তা শুধু বিএনপির সংকট নয়।

আজ এ সংকট এত গভীর যে এটা জাতির জন্য এটা বড় সংকট। এটা রাষ্ট্রের সংকট। এ রাষ্ট্র থেকে চিরতরে গণতন্ত্রকে বিসর্জন দেয়ার আয়োজন প্রায় সম্পন্ন হয়ে গেছে। একটা একদলীয় শাসনব্যবস্থায় নিয়ে যাওয়ার জন্য সব চক্রান্ত প্রায় সম্পন্ন। আজ বাংলাদেশের মানুষ পুরোপুরি একটা আবদ্ধ কারাগারের মধ্যে রয়েছে বলে ও মন্তব্য করেছেন তিনি ।

তিনি বলেন, গণবিচ্ছিন্ন হয়ে কখনও আন্দোলন সফল করা যায় না। সেজন্য জনগণকে সম্পৃক্ত করার জন্য আমাদের সব কৌশল করে নিতে হবে। আমি ব্যক্তিগত ভাবে খুব আশাবাদী ।

তিনি বলেন, বিএনপির পুনর্গঠন প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অত্যন্ত সঠিকভাবেই আমাদের অঙ্গসংগঠনগুলোকে পুনর্গঠিত করার কাজ শুরু করেছেন। বিএনপির সাংগঠনিক জেলাগুলোকে সক্রিয় করার কাজ শুরু করেছেন। আমার বিশ্বাস, অতি অল্প সময়ের মধ্যেই আমাদের এ সংগঠন আবার নিজের পায়ে দাঁড়াতে সক্ষম হবেই। অনেক ঝড় গেছে, অনেক ঝঞ্চা গেছে, অনেক সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে, তার মধ্যেও বিএনপি উঠে দাঁড়িয়েছে সবসময়। তিনি আরও বলেন, হতাশায় ভোগলে বিজয় অর্জন করা সম্ভব নয়। বিএনপি সেই দল, যে দলের রাজনীতি হচ্ছে এ দেশের জনগণের রাজনীতি মানুষের অধিকারের আদায়ের রাজীনীতি। এদেশের জনগন হচ্ছে বিএনপির সবচেয়ে বড় শক্তি। এ শক্তিকে কাজে লাগাতে হবে।
মির্জা ফখরুল বলেন, আমাদের মিডিয়া এখন নিয়ন্ত্রিত মিডিয়া। আপনারা লক্ষ করে দেখবেন যে, বিরোধী দলের খবর এখন সবচেয়ে কম ছাপা হয়- তৃতীয় কিংবা চতুর্থ পৃষ্ঠায়। ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় কয়েক সেকেন্ড খবর দেয়া হয়। কারণটা কী? মিডিয়া হচ্ছে একটা বড় মাধ্যম, যে মাধ্যমে জনগণের কাছে পৌঁছানো যায়। সে কারণে এই সরকারের অপচেষ্টা হচ্ছে, যারা জনগণের শক্তি নিয়ে এগোতে চায়, তাদের বিভ্রান্ত করা। আজ আমাদের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার চেষ্টা করা হচ্ছে বিভিন্নভাবে।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

three − 2 =

বাংলাদেশ একাত্তর