রাজধানী, রাজনীতি

ছাত্রলীগের থানা কমিটিতে বিতর্কিতদের স্থান

%e0%a6%9b%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%b2%e0%a7%80%e0%a6%97%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%a5%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%be-%e0%a6%95%e0%a6%ae%e0%a6%bf%e0%a6%9f%e0%a6%bf%e0%a6%a4%e0%a7%87

বাংলাদেশ একাত্তর.কম/ নিজেস্ব প্রতিবেদক:

পল্লবী-রূপনগর থানা ছাত্রলীগে অসংখ্য বিতর্কিত নেতার কারণে রাজনীতিতে নিষ্কিয় হয়ে পড়েছে এক সময়ের সক্রিয় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। পল্লবীতে একটি কথা প্রচলিত রয়েছে, বিবাহিত ও অছাত্র না হলে পল্লবী থানা ছাত্রলীগে কোন পদ পাওয়া যায় না। সম্প্রতি পূর্নাঙ্গ কমিটি দেওয়া রূপনগর থানা ছাত্রলীগ নিয়েও অভিযোগের শেষ নেই। যে কারনে ছাত্রলীগের থানা কমিটিতে বিতর্কিতরাই বেশি।

পল্লবী থানা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারন সম্পাদক রাজনীতিতে নিস্কিয় হয়ে যাওয়ার কারণে এই থানায় ছাত্রলীগের তেমন কোন কার্য্যক্রমই চোখে পড়ে না। সভাপতি-সাধারন সম্পাদক উভয়ের বিরুদ্ধে বিবাহিত ছাত্রনেতা হওয়ার অভিযোগ রয়েছে। যার মাঝে পল্লবী থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক আপন হোসেন সেলিমের স্ত্রীসহ বিয়ের ছবি স্যোসাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে।

এছাড়াও আপন হোসেন সেলিম চাকরিজীবি হওয়ার কারণে রাজনীতি থেকে দীর্ঘদিন দূরে রয়েছে। পূর্বের কর্মস্থল গোপালগঞ্জ হওয়ায় ছাত্রলীগের কোনো কর্যক্রম নেই পল্লবীতে। যদিও চাকরীজীবিদের জন্য ছাত্রলীগ না।
এছাড়াও পল্লবী থানা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি গাজী ইসলামের স্ত্রী সন্তানের ছবিসহ সবার হাতে হাতে।
১ নং যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ফরহাদ হোসেন চাঁদাবাজীর মামলায় জেল খেটে বের হয়েছে। দীর্ঘদিন রিহ্যাব ও খেটেছেন।

রাজনীতিতে একেবারেই নিষ্কিয় আরেক যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আহাসান উল্লাহ হাসান নিজের ফেইসবুকে স্ত্রী সন্তানসহ বিভিন্ন ছবি নিয়মিত পোষ্ট করে থাকেন।

পল্লবী থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শিহাব সর্দার নাজমুলের বিয়ের ছবিও রয়েছে সবার কাছে।

বিতর্কিতরা শুধু থানা কমিটি না, পল্লবী থানার অন্তর্গত ওয়ার্ড কমিটিতেও রয়েছে স্বগৌরবে। প্রতিটি ওয়ার্ড কমিটির শীর্ষ পদেই রয়েছে বিতর্কিতরা। পল্লবী থানার অন্তর্গত ২নং ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি জাকির হোসেন। যার স্ত্রী সন্তানের ছবি-সহ বিভিন্ন স্যোশাল মিডিয়া পাড়া জুড়ে তিব্র সমালোচনায় ভাসছে। পল্লবী থানার অন্তর্গত ৩নং ওয়ার্ড কমিটির সাধারন সম্পাদক আল ইত্তেহাদ রোহান। কট্টর আওয়ামী বিরোধী হিসেবে পরিচিত। তার নিজের ফেইসবুকে বিভিন্ন সময় আওয়ামীলীগের বিভিন্ন সমালোচনা এবং প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করা পোষ্ট দিয়েছে অতীতে। টাকার বিনিময়ে বর্তমান পোষ্ট পাওয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। পল্লবী থানার অন্তর্গত ৫ নং ওয়ার্ড কমিটির সভাপতি কামাল হোসেন অরফে কামাল পাশা। তার বিরুদ্ধে রয়েছে চাঁদাবাজির অভিযোগ পল্লবী থানায়। নাম কামাল হোসেন হলেও স্থানীয়দের কাছে এক আতংকের নাম কামাল পাশা। কামালের স্ত্রীর সাথে অন্তরঙ্গ ছবি থাকার পরও এবার পল্লবী থানা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী তিনি। মূলতঃ ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের আর্শিবাদক্রমে এই পদ পাবে বলে আশাবাদী কামাল পাশা। কামালের অন্যায়ের বিরুদ্ধে কেউ প্রতিবাদ করার সাহস করেনা। এমনকি তার একাধিক বিয়ের অভিযোগও রয়েছে।

পল্লবী থানার অন্তর্গত ৫ নং ওয়ার্ড কমিটির সাধারন সম্পাদক ইমরান আহমেদ। সম্প্রতি জালিয়াতি করে স্ক্যান করা চিঠি দিয়ে ফেইসবুকে নিজেকে পল্লবী থানার যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ঘোষনা করেন নিজেই। যদিও পল্লবী থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক নিজে জানিয়েছেন তার সাইন নকল করে এই জালিয়াতি করা হয়েছে।

৩ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সভাপতি, মোস্তাফিজুর রহমান পারভেজ তার বিরুদ্ধে রয়েছে গাদা-গাদা অভিযোগ। দেখতে ছোট হলেও ৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নাম ভাঙ্গিয়ে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মকান্ড করে আসছে তিনি বিবাহিত, স্ত্রীসহ ঘর সংসার করলেও  ছাত্রলীগের পদ তাকে হারাতে হয়নি।

ছাত্রদলের মিছিল, মিটিংয়ে
রূপনগর থানা ছাত্রলীগের যুুুুুগ্ন-সাধারণ সম্পাদ মহিদুল ইসলাম রাসেল।

রূপনগর থানা সম্প্রতি রূপনগর থানার পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষনা করেছে। ঘোষিত পূর্নাঙ্গ কমিটিতে স্থান হয়েছে বিতর্কিত , ছাত্রদলের মিছিল, মিটিংয়ের অগ্রভাগের সৈনিক ও বিবাহিত সন্তানের বাবার।


রূপনগর থানার পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান পাওয়া সহ সভাপতি তওহিদ আনোয়ারের সাথে স্ত্রী-সন্তানের ছবি রয়েছে। তবুও এই বিতর্কিত ব্যক্তিই স্থান পেয়েছে থানা কমিটির সহ সভাপতি হিসেবে।
রূপনগর থানার পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান পাওয়া জেষ্ট সহ সভাপতি রাজীব হোসেন জেবু নিজের ফেইসবুক প্রোফাইলে নিজেকে ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দিয়েছে।

যদিও ছাত্রলীগ করে ব্যবসা করার অনুমতি নেই। রাজীব হোসেন জেবু নিজের ফেইসবুক প্রোফাইলে পরিচয় দিয়েছেন জে এন্ড জে এন্টারপ্রাইজের এমডি হিসেবে। রূপনগর থানার পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যুগ্ন সাধারন সম্পাদক হিসেবে স্থান পেয়েছে ছাত্রদলের নিবেদিত কর্মী মহিদুল ইসলাম রাসেল। ছাত্রদলের অসংখ্য মিছিল মিটিংয়ে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার ছবি রয়েছে এই রাসেলের। রূপনগর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মারুফ হোসেন মিঠুকে বড় অংকের টাকার বিনিময়ে এই পোষ্ট কিনে নিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। টাকা কাছে বিক্রি ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র আয়নার মত পরিষ্কার পল্লবী ও রূপনগর থানা কমিটিতে কত অনিয়ম। এই বিতর্কিত কমিটি নিয়ে নানা সমালোচনার ঝড় বইছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও।

আহসান উল্লাহ হাসান

 

 

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share
bangladesh ekattor

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

five + 9 =