সারাদেশ

মিরপুরে নর্থ সিটি আবাসন লিমিটেডের অভিনব প্রতারণা: জমির মালিকদের মারধরের অভিযোগ

বাংলাদেশ একাত্তর.কম/ ওবায়দুল হক ডিকো:

রাজধানীর মিরপুর ১৩ নম্বরে বহুতল ভবন নির্মাণে নর্থ সিটি আবাসন লিঃ ডেভেলপার কোম্পানির অভিনব প্রতারণার অভিযোগ রয়েছে। জানা যায়, নর্থসিটি আবাসন কোম্পানির বিরুদ্ধে চুক্তিভঙ্গের অভিযোগ করায় জমির মালিকদের মারধরের অভিযোগ উঠেছে ওই ডেভেলপার কোম্পানির চেয়ারম্যান রেজাউল হকের বিরুদ্ধে।

পৈত্রিক সম্পত্তির ওয়ারিশান (মানুষিক রোগী) আবু কাসেম নামের এক ব্যক্তিকে মারধর করে ওই কোম্পানির চেয়ারম্যান রেজাউল হক সহ ১৫/২০ জন। ঘটনাটি গত মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) মিরপুর-১৩, ব্লক-সি, রোড-২, বাসা-৩৪ নম্বরে ঘটে।

পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। ঘটনার দু’দিন পর বৃহস্পতিবার ১৪ (জানুয়ারী) কাফরুল থানায় আবু কাসেমের বোন মিরিনা খানম বাদী হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মামলা দায়ের করেন। আসামীরা হলেন, নর্থ সিটি আবাসন লিঃ কোম্পানির চেয়ারম্যান রেজাউল হক (৪৬), ২ মোঃ খালেদ (৪৫), ৩ মোঃ জাকির (৩৫), ৪ কামাল (৫৫), ৫ মোঃ শরিফ (৪০), ৬ ছোট কামাল (৩০) সহ অজ্ঞাত নামা আরো ১০/১৫ জনের বিরুদ্ধে

মামলা সুত্রে জানা যায়, বহুতল ভবন নির্মানে নর্থ সিটি আবাসন লিঃ কোম্পানির সাথে আবু কাসেমের বোন মিরিনা খানমের চুক্তি হয়। ডেভেলপারস কোম্পানি তার নিজ খরচে রাজউক নকশা অনুমোদিত সাড়ে ছয়তলা বিশিষ্ট দুই ইউনিটের আবাসিক ভবন নির্মান করবেন। নির্মাণ শেষে ছয়টি ইউনিট ডেভেলপারস কোম্পানি অন্য ছয়টি জমির বর্তমান মালিকরা পাবেন। কিন্তু ডেভেলপারস কোম্পানি চুক্তি ভঙ্গ করেন। তারা শুধু নিজেদের ছয়টি ইউনিটের কাজ শেষ করে ফ্ল্যাট বিক্রি করে দেন। জমির মালিকদের মাত্র একটি ইউনিটের কাজ সম্পুর্ন করে বাকি পাঁচটির কাজ অসম্পূর্ণ রেখে দেয়। বর্তমানে উক্ত চুক্তিনামা দলিলের মেয়াদও প্রায় শেষের দিকে।

জমির মালিকদের দাবী, রেজাউল হক ছয়টি ইউনিটের কাজ শেষ করেই বিক্রি করেছেন। এখন আমাদের পাঁচটি ফ্ল্যাটের কাজ অসম্পূর্ণ রয়েছে। আমাদের নগদ টাকা নেই, মায়ের নামের সম্পত্তির ওয়ারিশ আমরা ৩ বোন ও ১ ভাই সম্মতিক্রমে ডেভেলপারস কোম্পানিকে দেই। কিন্তু নর্থ সিটি ডেভেলপারস কোম্পানির চেয়ারম্যান রেজাউল হক আমাদের সরল সোজা পেয়ে আমাদের সাথে প্রতারনা করেছে। ন্যায় বিচারের স্বার্থে ঢাকা পুলিশ কমিশনারসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছি। তারা আমার ভাই আবু কাসেম সে (মানুষিক ভাবে অসুস্থ) তাকে ধরে অমানুষিক ভাবে মারধর করেছে। আমার ছেলেকেও মারধর করেছে। মহিলাদের গায়েও হাত তুলেছে। পরে আমরা প্রশাসনের সহযোগিতায় রেহাই পায়।

জানাগেছে জমির মালিক পক্ষ নর্থ সিটি আবাসন লিঃ কোম্পানির চেয়ারম্যান রেজাউল হক এর বিরুদ্ধে ডিএমপির পুলিশ কমিশনার, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ, কাফরুল থানাসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করায় রেজাউল বাহিনী এ হামলা করে।

জনশ্রুতি রয়েছে, নর্থ সিটি আবাসন লিমিটেড কোম্পানি একটি ভুঁইফোঁড় কোম্পানি। এটি রিহ্যাব সদস্যভুক্ত কোনো কোম্পানি নয়। এই কোম্পানির অরিজিনাল চেয়ারম্যানের নাম জাল করে কখনো রেজাউল হক কখনো তার স্ত্রী মিসেস আসমা জাহান চেয়ারম্যান পরিচয় দেন।

অভিযোগ উঠে, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর জামাল মোস্তফার মাদক সম্রাট পুত্র রোমেল তার সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে এলাকায় মহড়া দেয়। ডেভেলপারস কোম্পানির হয়ে জমির মালিক পক্ষদের বিভিন্ন হুমকি ধামকি করে। ভুক্তভোগীরা যাতে থানায় কোনো মামলা করতে না পারে এবং অনাসে ফ্ল্যাট দখল নিতে পারে গত দুদিন ধরে বাড়ীর সামনে প্রচুর বহিরাগতদের আনাগোনা লক্ষকরা গেছে। জনশ্রুতি রয়েছে রেজাউল হক ১৫ লক্ষ টাকা চুক্রি করে তাদের ভাড়া করে আনে।

যদিও বিষয়টি অস্বীকার করে কাউন্সিলর জামাল মোস্তফা বলেন, আমার কোনো লোকজন এখানে জড়িত নেই। আমি তাদের বলেছিলাম বিচার করে দিবো তারা আমার কাছে আসেনি। আমার কথা হলো ডেভেলপারস কোম্পানি বিল্ডিং তৈরি করছে তাদের ভাগের ৬টি ফ্ল্যাট বিক্রি করছে। যারা কিনছে তাদের ফ্ল্যাটে উঠতে দিবেনা কেন?

এ বিষয়ে জানতে নর্থ সিটি আবাসন লিমিটেডের এর চেয়ারম্যান রেজাউল হকের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

কাফরুল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বলেন, মারধরের বিষয়ে মামলা হয়েছে আসামীদের কেউই আটক হয়নি। এজাহার ভুক্ত আসামীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share
bangladesh ekattor

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

eight − 3 =