আন্তর্জাতিক

ইরাক বিক্ষোভ: নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে নিহত ৫

%e0%a6%87%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%95-%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%b7%e0%a7%8b%e0%a6%ad-%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%aa%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a6%be-%e0%a6%ac

অনলাইন ডেস্ক
ইরাকে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে রবিবার ৫ জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। আন্দোলনের তৃতীয় দফায় সপ্তাহজুড়ে দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে অস্থিরতা বিরাজমান আছে। রবিবার ভোররাত থেকে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে রাজধানী বাগদাদসহ দক্ষিণের শহরগুলোতে আহত হয়েছেন শত শত আন্দোলনকারী। পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রের বরাত দিয়ে এই তথ্য দিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থা রয়টার্স।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, রবিবার ভোররাতে বিক্ষোভকারীরা বাগদাদের তিনটি ব্রীজ দখল করে বিক্ষোভ করতে থাকে। এসময় নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা তাদের দিকে কাঁদুনে গ্যাস ও গুলি ছোঁড়ে। এতে তিনজন বিক্ষোভকারীর মৃত্যু ঘটে। এছাড়া গুলি ও টিয়ার গ্যাসের ক্যানিস্টারের আঘাতে ৫০ জনেরও বেশি আহত হয়েছেন।

এদিকে একইদিন দুপুরের দিকে ইরাকের প্রধান সমুদ্র বন্দর আল কাসরের কাছে বাসরায় পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করার জন্য গুলি চালালে দুজন নিহত হন। এ ঘটনায় অন্তত ৭০ জন আহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, গুলিবিদ্ধ হয়েই ওই ৫ জন বিক্ষোভকারী নিহত মৃত্যুবরণ করেছে। এছাড়া আহতদের অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাই মৃতের সংখ্যা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ইরাক সরকার বৃহস্পতিবার আন্দোলনকারীদের দমন করার জন্য এবং বন্দরগুলোতে তাদের প্রবেশ বন্ধ করার জন্য বন্দরগুলোর প্রবেশপথ বন্ধ করে দেয়। এর প্রতিবাদেই শুক্রবার থেকে দেশটিতে সরকারবিরোধী আন্দোলনের তৃতীয় দফা শুরু হয়।

এর আগে বেকারত্ব নিরসন ও সরকারের দূর্নীতি বন্ধের দাবিতে সরকার বিরোধী আন্দোলন শুরু হয় ইরাকে। প্রায় দুই মাস ধরে চলা এই বিক্ষোভের তৃতীয় দফা চলছে এখন। বিক্ষোভকারীদের দমনে কঠোর থেকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করছে দেশটির সরকার। গত অক্টোবরেই সরকারি বাহিনীর গুলিতে অন্তত ৩৩০ জন আন্দোলনকারী মৃত্যুবরণ করেছেন সরকার বিরোধী এই আন্দোলনে।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share
Avatar

bangladesh ekattor

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

2 × 4 =