সোমবার , ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আওয়ামীলীগ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তথ্য-প্রযুক্তি
  8. ধর্ম
  9. বি এন পি
  10. বিনোদন
  11. বিশেষ সংবাদ
  12. রাজধানী
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. শিল্প ও সাহিত্য

পল্লবী থানার এস আই সজিব খানের নেতৃত্বে-৫০ টি খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার

প্রতিবেদক
bangladesh ekattor
ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৯ ৪:০৯ পূর্বাহ্ণ

পল্লবী থানার পুলিশ অফিসার, এস আই সজিব খানের নেতৃত্বে-৫০ টি খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার সম্ভব হয়েছে।

(বাংলাদেশ একাত্তর.কম) নিজেস্ব প্রতিবেদকঃ পুলিশের খারাপ দিকটাই তো সবাই  ভালো খুব খেয়াল করে কিন্তু ভালো দিক গুলো ক’জনে শিয়ার করে। পুলিশ ভালো কাজ করেছে এমন খবর শোনা মানুষের মুখে বিড়াল ঘটনা হয়ে দাড়িয়ে বর্তমানে। তবে খারাপ কাজ করেছে শোনা যায় অহরহ! তাই তো নুতন এ প্রজন্মের পুলিশ অফিসার সবাইকে তাক লাগিয়ে একে একে অর্ধোশতক চুরি, ছিনতাই হারানোসহ খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করে পুলিশের ভাবমুর্তি আরো দিগুন বাড়িয়েছে।

পল্লবী থানার চৌকস পুলিশ অফিসার, এস এই সজিব খান তার নিজের ফেসবুক পেইজে তিনি অর্ধোশতক খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধার করেছেন বলে জানিয়েছেন।

এস আই সজিব খানের ফেসবুক পেইজ থেকে সংরক্ষণ করা।

তার এই সাফল্যকে স্বাগতিক জানিয়েছেন যোগাযোগ গণমাধ্যমের ফেসবুক বন্ধুরা। এই ভাবে যদি বাংলাদেশের প্রতিটি থানায় পুলিশ অফিসার দায়ীত্ব নিয়ে দেশের জনগণের পাশে দাড়ায় তবে একদিন হয় তো আর চুরি, ছিনতাইসহ কোন প্রকার অপরাধ হবেনা। পুলিশ জনগনের বন্ধু তা এস আই সজিব খানের উদ্ধার কাজের তৎপরতা দেখেই বোঝা যায়।

পুলিশ ইচ্ছা করলে ৪৮ ঘনটার মধ্য দেশের সকল অপরাধ বন্ধ করার ক্ষমতা রাখে। এমন প্রশ্ন করলে পল্লবী থানার এক পুলিশ কর্মকর্তা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বলেন, আমাদের হাত পা-বাধা, জীবনের বাজী রেখে অপরাধীকে ধরি পরে  উপরের নির্দেশে তাকে জামাই আদরে ছেড়ে দিতে হয়। তিনি আরও বলেন, যদি বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীকে কোন উপর মহল চাপ না দিত, আইন তার নিজেস্ব গতিতেই চলবে তাহলে অপরাধ করতে হলে-১০০ বার অনত্ত চিন্তা ভাবনা করতো যে কোন অপরাধীরা ।

সর্বশেষ - অন্যান্য