অন্যান্য

ধর্ষণের অভিযোগে আটক ৩

%e0%a6%a7%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%b7%e0%a6%a3%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%85%e0%a6%ad%e0%a6%bf%e0%a6%af%e0%a7%8b%e0%a6%97%e0%a7%87-%e0%a6%86%e0%a6%9f%e0%a6%95-%e0%a7%a9

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশ একাত্তর .কম

ঢাকা: ঢাকা জেলার দক্ষিন কেরানীগঞ্জ থানা এলাকা থেকে ধর্ষণের অভিযোগে তিন জনকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১০)।

শুক্রবার (১০ জুলাই) রাতে র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক (সিও) এডিশনাল ডিআইজি মো. কাইমুজ্জামান খান এ তথ্য  নিশ্চিত করেন।

আটকরা হলো: মোঃ তাইজুল ইসলাম ওরফে বাপ্পি (২৩), মোঃ ইব্রাহিম(২৮), ও মোঃ একরাম(১৮)।

তিনি জানান, ভিকটিম বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) আসামি তাইজুল ইসলাম, ইব্রাহিম ও একরামসহ অজ্ঞাতনামা আরও দুই জনের নামে ধর্ষণের লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে (০৯ জুলাই) রাতে র‌্যাব-১০ এর একটি দল ঢাকা জেলার দক্ষিন কেরাণীগঞ্জ থানাধীন নাগরমহল এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত তিনজনকে আটক করে।

র‌্যাব জানায়, গত (২৯ জুন) ভিকটিম তার স্বামীর সাথে পারিবারিক কলহ করে তার বোন এর বাসা জিনজিরা, কেরানীগঞ্জ চলে যায়। পরবর্তীতে তার স্বামী তাকে নিয়ে আসতে গেলে ভিকটিমের বোন নাগর মহল ইব্রাহিমের ক্লাবে তার স্বামীর বিরুদ্ধে বিচার দেয়। অতঃপর ইব্রাহিম তাদেরকে ক্লাবে ডেকে নিয়ে বিষয়টির মীমাংসা করে দেয়। গত (৭জুলাই) দুপুর তিন টার সময় মোঃ তাইজুল ইসলাম ওরফে বাপ্পিসহ কয়েকজন ভিকটিমের বাসায় গিয়ে তার স্বামীর কাছে মিমাংসা বাবদ ২০ হাজার টাকা দাবি করে। তখন তার স্বামী টাকা দিতে অস্বীকার করে। একই দিন রাত সাড়ে ৮ টায় আসামিরা ভিকটিমকে আবার ক্লাবে ডেকে নিয়ে মিমাংসা বাবদ ২০ হাজার টাকা দাবি করে। ভিকটিম টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে মোঃ তাইজুল ইসলাম ওরফে বাপ্পি ভিকটিমকে ক্লাবের পাশে অন্ধকার গলিতে নিয়ে ছুড়ি দিয়ে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে। এসময় বাপ্পীর সহযোগী মোঃ ইব্রাহিম ও একরাম সহ আরও অজ্ঞাত দুই জন পাহারায় ছিল। আসামিদের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়েছে বলেও জানান এডিশনাল ডিআইজি কাইমুজ্জামান।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

five − 2 =

বাংলাদেশ একাত্তর