বৃহস্পতিবার , ২ জুন ২০২২ | ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আওয়ামীলীগ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তথ্য-প্রযুক্তি
  8. ধর্ম
  9. বি এন পি
  10. বিনোদন
  11. বিশেষ সংবাদ
  12. রাজধানী
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. শিল্প ও সাহিত্য

চেয়ারম্যান অপসারণের দাবীতে মন্ত্রী বরাবর অভিযোগ

প্রতিবেদক
bangladesh ekattor
জুন ২, ২০২২ ১১:৩৮ অপরাহ্ণ

সোনাইমুড়ি জয়গা ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়!

বাংলাদেশ একাত্তর.কম/সোনাইমুড়ী প্রতিনিধি;

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ি উপজেলার ১ নম্বর জয়াগ ইউপির চেয়ারম্যান শওকত আকবর পলাশকে, চেয়ারম্যানের পদ থেকে অপসারণ ও তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর কাছে আবেদন করা হয়েছে। গত কয়েক বছর যাবৎ এলাকাবাসী তার হাতে নির্যাতনের শিকার হয়ে আসছে। পলাশকে চেয়ারম্যানের পদ থেকে অপসারণ করা হলে শান্তিপ্রিয় এলাকাবাসীর তার সন্ত্রাসী বাহিনীর নির্যাতনের হাত থেকে মুক্তি পাবে বলে আবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

আনোয়ার হোসেন ( ছদ্ম নাম) নামের জনৈক ব্যক্তি এলসকাবাসীর পক্ষে দেওয়া আবেদনে উল্ল্যেখ করা হয়েছে, জয়াগ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শওকত আকবর পলাশ জনগণের সেবক হয়ে, কথায় কথায় জনগণের উপর নির্যাতন চালায়। বিচারপ্রার্থীরা তার কাছে বিচার নিয়া আসলে তিনি গালমন্দ করেন। বিচারপ্রার্থীদেব কারণে-অকারণে মারধর করেন। বিচারপ্রার্থী ও প্রতিপক্ষ উভয়ের নিকট থেকে গোপনে গোপনে টাকা আদায় করে থাকেন।

২০১৭ সালের ৩১ শে মে পবিত্র রমজানে জয়াগ বাজারের সংখ্যালঘু হিন্দু ব্যবসায়ীদের শত শত মানুষের সামনে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। ১০ টাকা কেজির চাল আত্মসাতের অভিযোগে ২০১৮ সালের ১৩ই মে ইউনিয়ন পরিষদের সকল মেম্বারেরা তার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেন।

একই বছর ২১শে শতবর্ষী দীঘি দখলের অভিযোগে এলাকাবাসী জয়াগ বাজারে তার বিরুদ্ধে মানববন্ধন করেন। ২০২২ সালে ৫ই জানুয়ারি অনুষ্ঠিত ইউপির নির্বাচনের পূর্বে পলাশ তার প্রতিপক্ষ প্রার্থীদের উপর নির্যাতন নিপীড়ন চালায়। প্রতিপক্ষের অফিস ভাঙচুর করে এবং নেতাকর্মীদের মারধর করে। পলাশ চেয়ারম্যানের সন্ত্রাসী বাহিনী এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে।

নানা কারচুপির মাধ্যমে ওই নির্বাচনে পলাশ পুনরায় জয়লাভ করে।আবেদনে আরো বলা হয়েছে,ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হয়ে মন্ত্রী-এমপির মত এলাকায় চলাফেরা করে পলাশ। এ চেয়ারম্যান চলাচল করার সময় তার আগে পিছে বিশাল মোটরসাইকেলের বহর থাকে। কেউ পলাশের অপকর্মের বিরুদ্ধে কোন কথা বললে বা কোন কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করলে এই সন্ত্রাসী বাহিনী তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে।

গত কয়েক বছরে পলাশ চেয়ারচেয়ারম্যান ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হাতে, ইউনিয়নের বহু মানুষ নির্যাতনের শিকার হয়েছে। অনেকেই পঙ্গুত্ব জীবন যাপন করছে। তাছাড়া বিচারপ্রার্থী নারীদের তিনি অকথ্য ভাষায় গালিমন্ধ করেন। অনেক নারীকে অনৈতিক কাজের জন্য কু-প্রস্তাব প্রদান করেন।
সোনাইমুড়ী উপজেলা ১ নম্বর জয়াগ ইউনিয়নের সন্ত্রাসী চেয়ারম্যান, শওকত আকবর পলাশকে চেয়ারম্যানের পদ থেকে অপসারণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা করার জন্য এলজিআরডি মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের কাছে এলাকাবাসী জোর দাবী জানিয়েছেন।

সর্বশেষ - সর্বশেষ সংবাদ

আপনার জন্য নির্বাচিত

একুশে টেলিভিশনের চিত্র সাংবাদিক হাসপাতালে ভর্তি

অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানের নামে শাহজাহান ভূইয়া রাজু গংদের অনৈতিক ব্যবসা বন্ধে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ভয়াবহ অভিযোগ

মিরপুরে জাতির পিতার শতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

২৬ কেজি গাঁজাসহ ২ মাদক কারবারী’কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৪

বরিশাল লঞ্চ ঘাটে যাত্রীরা হেনস্তার শিকার

হেলেনার দুই অন্যতম সহযোগী গ্রেফতার

পল্লবী থানা হেফাজতে জনি হত্যার বিচারের দাবিতে পোস্টারে ছেয়ে গেছে

পল্লবীতে বিপুল পরিমান গাঁজা ভর্তি ট্রাকসহ গ্রেফতার-২

পল্লবীতে বিপুল পরিমান গাঁজা ভর্তি ট্রাকসহ গ্রেফতার-২

কালসী সড়ক সংস্কারের অভাবে মরণ ফাঁদ: রয়েছে অবৈধ ট্রাক ষ্ট্যান্ড

সরকার সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে কি-না: শিক্ষামন্ত্রী