তথ্য-প্রযুক্তি, বিশেষ সংবাদ, সারাদেশ

কম্পিউটারের ওপর প্রস্তাবিত বাজেটে আরোপিত ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি

%e0%a6%95%e0%a6%ae%e0%a7%8d%e0%a6%aa%e0%a6%bf%e0%a6%89%e0%a6%9f%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%93%e0%a6%aa%e0%a6%b0-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a6%be%e0%a6%ac

দেশের বেশিরভাগ কম্পিউটার ব্যবহারকারী হচ্ছে মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ। মধ্যবিত্ত পরিবারের কাছে ল্যাপটপ কম্পিউটার একটা ফ্যাক্টর;

বাংলাদেশ একাত্তর.কম-মিরাজ;

ঢাকা: দেশের ২০২২-২০২৩ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটে কম্পিউটারের ওপর নতুন ভাবে আরোপিত ১৫% ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি ও বিসিএস কম্পিউটার সিটি ম্যানেজমেন্ট কমিটি।

বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বিকালে রাজধানীর বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে (আইডিবি) আয়োজিত এক মত বিনিময় সভায় বক্তারা এ দাবি জানান। বিসিএস কম্পিউটার সিটি ম্যানেজমেন্ট কমিটি মত বিনিময় সভার আয়োজন করে।

সভায় বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সভাপতি সুব্রত সরকার বলেন, দেশের বেশিরভাগ কম্পিউটার ব্যবহারকারী হচ্ছে মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ। একটি মধ্যবিত্ত পরিবারের কাছে ল্যাপটপ কম্পিউটার ফ্যাক্টর। যখন কম্পিউটারের ভ্যাট-ট্যাক্স প্রচার করা হয়েছিল তখন ২৮ থেকে ৩০ হাজার টাকায় বিক্রি করা যেত। আজকে যখন ২০২২ সাল থেকে স্মার্ট বাংলাদেশের কথা বলা হচ্ছে। এখন যদি নতুন করে কম্পিউটারের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করার কথা বলা হয়, এক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা করায় স্মার্ট বাংলাদেশের ব্যত্যয় ঘটবে। ভ্যাট প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা কম দামে কোয়ালিটি প্রডাক্ট মানুষের কাছে তুলে দিতে চাই। কোয়ালিটি একটা ফ্যাক্টর। দেশে এর আগেও কম্পিউটার অ্যাসেম্বলিং করার চেষ্টা করা হয়েছিল। ওয়ারেন্টি এবং কোয়ালিটি কারণে এটা সম্ভব হয়নি। আমাদের দেশে স্টার্টারদের (উদ্যোক্তা) কম্পিউটারের কোন বিকল্প নাই। তাদের হাতে ৫০ হাজার টাকার কম্পিউটার দিলে তারা বিব্রত হবেন।

স্মার্ট বাংলাদেশের কথা উল্লেখ করে তিনি আরো বলেন, একটি প্রিন্টারের সর্বনিম্ন মূল্য ১৩ থেকে ১৪ হাজার টাকা। এর মধ্যে যদি আরো ১৫ শতাংশ ভ্যাট বাড়ানো হয় তাহলে কম্পিউটারের দাম বেড়ে যাবে। কম্পিউটারের দাম বাড়লে ব্যবহারকারী কমে যাবে। সরকার যে স্মার্ট বাংলাদেশের কথা বলছে এর ব্যত্যয় ঘটবে।

মত বিনিময় সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সহ-সভাপতি রাশেদ আলী ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান ভূঁইয়া, স্মার্ট টেকনোলজিস লিঃ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. জহিরুল ইসলাম, গ্লোবাল ব্র্যান্ড প্রাইভেট লিমিটেড ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ রফিকুল আনোয়ার ও পরিচালক খন্দকার জসিম উদ্দিন, বিসিএস কম্পিউটার সিটি ম্যানেজমেন্ট কমিটির সাবেক সভাপতি ও বর্তমান উপদেষ্টা মোঃ আহমেদ হাসান জুয়েল, সভাপতি মোঃ এ এল মজহার ইমাম চৌধুরী পিনু, সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাহবুবুর রহমান, স্টারটেক ইঞ্জিনিয়ারিং পরিচালক জাহেদ আলী ভূঁইয়া, উপদেষ্টা মোঃ মাহমুদুর রহমান খান ও ব্যবসায়িবৃন্দ।,

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

বাংলাদেশ একাত্তর