সারাদেশ

মোংলার জয়খাঁ গ্রামে দীপু মৃধার ৯ম ধাপে মাস্ক বিতরণ

%e0%a6%ae%e0%a7%8b%e0%a6%82%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a7%9f%e0%a6%96%e0%a6%be%e0%a6%81-%e0%a6%97%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%ae%e0%a7%87-%e0%a6%a6%e0%a7%80%e0%a6%aa%e0%a7%81

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস এর প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সচেতনতা কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এবং করোনাভাইরাস থেকে সুরক্ষা পেতে মোংলা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ২০ হাজার মাস্ক বিতরণ কর্মসূচী অব্যাহত রেখেছেন দক্ষিণ চাঁদপাই গ্রামের কৃতি সন্তান দীপঙ্কর মৃধা দিপু।

প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের প্রভাবে নাজেহাল পুরো বিশ্ব। এই ভাইরাস প্রতিরোধে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে বিশ্বের সকল রাষ্ট্র। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাস থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখতে মাস্ক ব্যবহারের উপর নির্ভরতা বাড়ছে অনেকের। এই নির্ভরতাকে সুযোগ লাগিয়ে কিছু কিছু ব্যবসায়ীরা বাড়িয়েছে মাস্কের দাম। এই ঊর্ধ্বমূখী অনাকাঙ্খিত দামের সময় প্রায় সকল শ্রেণীর(দিনমজুর, শ্রমিক,ভ্যান চালক, দোকান মালিক, পথচারী) মানুষের মাঝে বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ করেছেন দীপু মৃধার প্রতিনিধিরা।

২৭ জুলাই সোমবার বিকালে মোংলা উপজেলার জয়খাঁ গ্রামে ৯ম ধাপে ৬’শত মাস্ক বিতরণ করা হয়।

এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব হরিবর বৈরাগী। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন কিশোর কুমার রায়।আরো উপস্থিত ছিলেন কিশোর কুমার মণ্ডল(লজিক প্রকল্পের প্রতিনিধি),কনক মল্লিক(জয়খাঁ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি)।

দীপু মৃধার প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব আফজাল হোসেন, মোঃ শাহ্ আলম, আজিজ মোড়ল, শুভ, সুমন শেখ ও ইসমাইল হোসেন।

পরিশেষে দীপু মৃধার প্রতিনিধি জনাব আফজাল হোসেন বলেন-“স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি সবাই মিলে মাস্ক পরি”। তিনি এই বিষয়ের উপর সবাইকে সচেতন করেন এবং আরো বলেন দীপু দাদা সুদূর আমেরিকাতে থেকেও তার জন্মভূমির কথা ভুলে যান নি।তিনি আমাদের জন্য যা করছেন তা অভাবনীয়।আমরা তার প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে নিজেদের ধন্য মনে করছি।আসুন আমরা সবাই মিলে মাস্ক পড়ি এবং অন্যদের মাস্ক পড়তে সচেতন করি।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

thirteen − 3 =

বাংলাদেশ একাত্তর