সারাদেশ

মানবিক সহায়তার আবেদন।

%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%95-%e0%a6%b8%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a7%9f%e0%a6%a4%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%a6%e0%a6%a8%e0%a5%a4

বাংলাদেশ একাত্তর.কমঃ মানিক হাসান

আপনি চাইলে আপনার যাকাত ফেতরা অনুদান জনছায়ার মাধ্যমে ক্ষুধার্ত মানুষের পাশে দাড়াতে পারেন।

প্রিয় ধর্মপ্রাণ মুসলমান ভাই ও বোনেরা, আসসালামু আলাইকুম। এবার বিশ্ব মুসলিম উম্মাহকে ঈদুল আজহা পালন করতে হবে করোনা মহামারীরির মতো একটি ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির জন্য হয়তো অনেকেরেই এই পবিত্রতা পালন করা হয়ে উঠবে কষ্টসাধ্য। যার কারণে কোরবানী দেয়া মানুষের সংখ্যা যেমন কম হবে তেমনি কোরবানীর গোস্ত প্রত্যাশী মানুষের সংখ্যা হবে অনেকটাই বেশি। ঝামেলার কারণ হয়ে উঠবে গরীব দুঃখীদের জন্য বরাদ্দকৃত অংশটুকু স্বাস্থ্যবিধি মেনে সঠিকভাবে বন্টন করার বিষয়টি। সুষ্ঠু বন্টন ব্যবস্থার অভাবে অনেক অসহায় গরীব মানুষ বঞ্চিত হতে পারে। এমত অবস্থায় উপরোক্ত বিষয়টি বিবেচনা করে জন ছায়া ফাউন্ডেশন অতীতের নেওয়া বিভিন্ন উদ্বেগের মতো এবারো আপনাদের সহযোগীতায় গরীব দুঃখীর পাশে দাড়াতে চায়।

জনছায়া করোনা মহামারীর শুরু থেকেই আর্ত মানবতার সেবায় পুরো ঢাকা শহর জুড়ে বিভিন্ন মানবিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে । এর মধ্যে ছিল অসহায় মানুষের জন্য খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, ইফতার বিতরণ, রোজাদার মানুষের জন্য সেহেরী বিতরণ, ক্ষুধার্ত মানুষের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ এবং অভুক্ত কুকুরের খাবারের ব্যবস্থা করা। এখন পর্যন্ত পর্যায় ক্রমে আপনাদের সাহায্য সহযোগিতায় প্রায় ২৬ হাজার এর বেশি পরিবারের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিতে সক্ষম হয়েছে জনছায়া, দাড়াতে চায় দেশের লাখো মানুষের পাশে যার প্রস্তুতি এখনো চলমান। যা ইতিমধ্যে বিভিন্ন গণ মাধ্যমে আপনারা দেখে থাকবেন। এরই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে আপনার দেয়া কোরবানীর গোস্তসহ চাল ,ডাল, আলু ,তেল, পিয়াজ সহ ইত্যাদি সঠিকভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সেচ্ছাসেবীর মাধ্যমে উপযুক্ত মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে । সুতরাং আপনাদের কাছে আমাদের আকুল আবেদন এই যে, আপনার কোরবানীর গোস্তের গরীব দুঃখীদের জন্য বরাদ্দকৃত অংশ থেকে কিছু গোস্ত সহ খাবার সামগ্রী (যদি পারেন) আমাদের সংগঠনের মাধ্যমে বিতরণ করে আমাদের মহতি উদ্দ্যোগকে সহযোগিতা করুন। যাতে গরীব অসহায় মানুষগুলো একদিনের জন্য হলেও পেটপুরে গোস্ত দিয়ে খেতে পারে।

আপনি / আপনারা চাইলে আমাদের সাথে থেকেই তা বিতরণ করতে পারেন সকল স্বাস্থ্যবিধি মেনে। এছাড়াও ঈদের পরপরই জনছায়ার টিম ছুটে যাবে বন্যা কবলিত এলাকায় খাবার সাম্যগ্রী নিয়ে। সেই খাবার তালিকায় থাকবে চাল, ডাল, আটা, চিড়া, গুড়,বিস্কিট ইত্যাদি, সহ বিভিন্ন খাবার সাম্যগ্রী। আপনার সামান্য সহযোগীতায় হাসি ফুটে উঠতে পারে সেই বন্যা কবলিত এলাকার মানুষের মুখে।

বিঃদ্রঃ আমাদের হটলাইনে ফোন দিলে আমাদের সেচ্ছাসেবীরা গিয়ে আপনার নির্ধারিত স্থান থেকে উপহার সংগ্রহ করে নিয়ে আসবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন নিরাপদ জিবন গড়ুন।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

বাংলাদেশ একাত্তর