রবিবার , ২৬ জুলাই ২০২০ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন ও আদালত
  3. আওয়ামীলীগ
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তথ্য-প্রযুক্তি
  8. ধর্ম
  9. বি এন পি
  10. বিনোদন
  11. বিশেষ সংবাদ
  12. রাজধানী
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. শিল্প ও সাহিত্য

এখনো বন্ধ হয়নি রুপনগরে কোটি টাকার চাঁদাবাজি

প্রতিবেদক
bangladesh ekattor
জুলাই ২৬, ২০২০ ৫:৩৭ পূর্বাহ্ণ

বাংলাদেশ একাত্তর.কম প্রতিবেদক {মোঃ রাজু আহমেদ}
রূপনগরে চাঁদাবাজরা দিনে দিনে বে-পরোয়া হয়ে উঠেছেন। প্রশাসনের নজরদারি না থাকায় রুপনগরে এখনো বন্ধ হয়নি কোটি টাকার চাঁদাবাজি। তাদের নাকের ডগায় সড়ক ও ফুটপাতে চাঁদাবাজি করে চলেছে কাদের সিন্ডিকেট। গত, জুন মাসের ৩০ তারিখ রুপনগরের চাঁদাবাজি নিয়ে “বাংলাদেশ একাত্তর” ডটকম এ একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদন প্রকাশিত হলেও টনক নড়েনি পুলিশ প্রশাসনের। বরং উল্টো চাঁদা দ্বিগুন হয়েছে। প্রতিমাসেই সড়ক ও ফুটপাতের দোকান থেকে কোটি টাকা চাঁদা আদায় করছে থানার লাইন ম্যান কাদের সিন্ডিকেট।

রুপনগর এলাকা ঘুরে দেখা যায়, সড়ক ও ফুটপাতের প্রায়ই তিন হাজারের অধিক ভ্রাম্যমাণ দোকান থেকে প্রতিদিন ৫০ টাকা থেকে ২০০ টাকা চাঁদা আদায় করছে লাইন ম্যান বিল্লাল সহ আরো এক কিশোর। তারা চাঁদা তোলার দায়িত্বে রয়েছেন। এরা সবাই কাদেরের হয়ে চাঁদা তোলেন। জানা গেছে দোকান ভেদে ৫০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত চাঁদা আদায় হয়। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা জানান, দৈনিক চাঁদার পাশাপাশি প্রতি সপ্তাহে ও ২০০ টাকা করে চাঁদা দিতে হয়।

দুয়ারিপাড়া মোড় থেকে দোকান বসানো মোল্রাহ টাওয়ার পযর্ন্ত।ছবি-বাংলাদেশ একাত্তর.কম

অনুসন্ধানে জানা যায়, রাজধানীর মিরপুর রুপনগর থানাধীন দুয়ারীপাড়া এলাকার মোল্লা টাওয়ার পর্যন্ত, ফুটপাত ও সড়কের উপর দুই লাইন করে দোকান বসানো হয়েছে। এছাড়াও, দুয়ারীপাড়া মোড় থেকে মিল্কভিটা চৌরাস্তা পর্যন্ত। অন্যদিকে দুয়ারীপাড়া মোড় হয়ে শিয়ালবাড়ী কবরস্থান যাওয়া আসার পথে ফুটপাত ও মুল সড়কের দুপাশেই একি চিত্র। তাছাড়াও রূপনগরের বিভিন্ন সড়ক ও ফুটপাত এবং অলিগলিতে অস্থায়ী ছোট ছোট চৌকি বসিয়ে এবং ভ্যানগাড়ী ভিত্তিক বিভিন্ন ধরনের দোকানপাট সাজিয়ে ব্যবসা বানিজ্য চলছে হরদমে।

ফলে সকাল সন্ধ্যা রূপনগর এলাকা যানজটে পরিনত হচ্ছে। জন দুর্যোগে এলাকাবাসী করোনায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনার ভয়ে রেয়েছেন তারা। গায়ে গায়ে বিক্রেতার ঠেলাঠেলি ছোট-বড় দুর্ঘটনা তো লেগেই আছে। রুপনগর থানার ডিউটিরত টহল পুলিশ কাঠের চশমা পড়ে সেখানে দিয়ে ঘোরাঘুরি করলেও অদৃশ্য কারনে নজর পড়েনা তাদের।

রুপনগর থানার ডিউটিরত টহল পুলিশ কাঠের চশমা পড়ে সেখান দিয়ে ঘোরাঘুরি করছে।ছবি-বাংলাদেশ একাত্তর.কম

রুপনগর থানাধীন মিল্কভিটা মোড়ে প্রকাশ্য দিবালোকের ভিড়ে সড়কে চাঁদা তোলার সময় এ প্রতিবেদকের কাছে বিল্লাল ও তার সহযোগিরা বলেন, আমরা বেতন ভুক্ত কর্মচারী ‘কাদের ভাই থানা কন্টাক্ট নিয়েছে যা কিছু জানার তার সাথে কথা বলেন। শনিবার সন্ধ্যায়, চাঁদাবাজির বিষয়ে জানতে থানার লাইনম্যান কাদেরের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি কাদের না” এই বলে মোবাইল সংযোগটি বিচ্ছিন্ন করে দেয়।
এখনো বন্ধ হয়নি  কাদেরের চাঁদাবাজি এ-বিষয়ে পুনরায় জানতে রুপনগর থানার ওসি সাহেবের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন-নি।
এ বিষয়ে, মিরপুর জোনের উপ-পুলিশ কমিশনার এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি খবর নিচ্ছি।
 বাংলাদেশ একাত্তর.কম প্রতিবেদক {মোঃ রাজু আহমেদ} রবিবার/২৬/০৭/২০২০ইং

সর্বশেষ - সর্বশেষ সংবাদ

আপনার জন্য নির্বাচিত