কুষ্টিয়া, সারাদেশ

বিষাক্ত মদ্যপান করেই দিনের খবরের সম্পাদক জিল্লুর মৃত্যু: ময়নাতদন্ত ছাড়া দাফন

%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%b7%e0%a6%be%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%a4-%e0%a6%ae%e0%a6%a6%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%aa%e0%a6%be%e0%a6%a8-%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%87%e0%a6%87-%e0%a6%a6%e0%a6%bf%e0%a6%a8

বাংলাদেশ একাত্তর.কম/কুষ্টিয়া থেকে/কে এম শাহীন রেজা:

বিষাক্ত অ্যালকোহল পান করেই দৈনিক দিনের খবর সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু অসুস্থ হন। ঢাকায় নেয়ার পথে বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে তিনি মারা যান ।


কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের রেজিস্টারে তার অসুস্থতার কারণ বিষাক্ত অ্যালকোহল বলে লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। আজ শুক্রবার বাদ জুম্মা তার জানাজা শেষে কুষ্টিয়া পৌর গোরস্থানে দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়।


বিষাক্ত অ্যালকোহল পান করে মারা যাওয়া বিষয়টি এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ময়নাতদন্ত ছাড়া দাফন করা। তার সাথে যারা মদ্যপান করেছে তাদেরকে জিল্লু হত্যার দায় থেকে এড়ানোর জন্যই তড়িঘড়ি করে দাফন করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছে সুশীল সমাজ।


এদিকে, জিল্লুর সহকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন ,জিল্লু যাদের সাথে ব্যাবসায়ী পার্টনার তারাই মদের সাথে বিষ মিশিয়ে জিল্লুকে হত্যা করেছে। হাসপাতালে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, জিল্লু অসুস্থ্য অবস্থায় ডাক্তারকে জানিয়েছেন তিনি সহ চারজন মদ্যপান করেছিলেন। জিল্লু অসুস্থ্য হয়ে যাওয়ার পর যে দুইজন তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেছে তারা তার মদের আসরেরই সদস্য ছিলেন।

জিল্লুর মৃত্যু হলেও তাদের মদ্যপানে কিছুই হয়নি। এ দুজনেই জিল্লুর ব্যবসায়ীক পার্টনার বলে একাধিক সুত্র নিশ্চিত করেছে। এব্যাপারে একাধিক ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলেলে জানান, যদি চারজন মিলে বিষাক্ত মদপান করে থাকেন তাহলে তারা সকলে অসুস্থ্য হবেন। সবাই মারা নাও যেতে পারেন তবে অসুস্থ্য না হওয়ার কোন কারণ নেই।

সংবাদিক নেতৃবৃন্দের বক্তব্য তার সাথে থাকা সহকর্মীরা তাকে হত্যা করেছে। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তিদের শাস্তির আওতায় আনার জন্য জোর দাবী জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি মোঃ গোলাম মোস্তফার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, পরিবারের পক্ষে থেকে কোন অভিযোগ না করায় কোন আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়নি ।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share
bangladesh ekattor

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

5 × four =