অন্যান্য

হারুন মোল্লা খেলার মাঠ এখন পানির মাঠ!

%e0%a6%b9%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%81%e0%a6%a8-%e0%a6%ae%e0%a7%87%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%8d%e0%a6%b2%e0%a6%be-%e0%a6%96%e0%a7%87%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a0-%e0%a6%8f

নিজেস্ব প্রতিবেদকঃ রাজধানীর মিরপুর পল্লবী থানা সংলগ্ন, হারুন মোল্লা ঈদগাহপার্ক ও খেলার মাঠ এখন পানির মাঠে রুপান্তরিত হয়েছে। এই মাঠে ভোর থেকে শুরু করে রাত্রী পর্যন্ত চলে নানা রকম খেলাধুলার প্রতিযোগিতা। দৈনিক কয়েক হাজার ছোট বড় সকল বয়সের লোকজনের আগমন ঘটে এই মাঠে। অথছো সব সময় লক্ষ করা যায় মাঠের চারপাশেই ময়লার স্থুপ ও সিটি করপোরেশনের ময়লার ডাস্টবিন সড়ক দখল করে এবং ঠেলা গাড়ীর বিশাল লাইন থাকে।

সড়ক দখল করে রাখা হয় ভাবেই সিটি করপোরেশনের ময়লার ডাস্টবিন

সিটি করপোরেশনের ময়লার ডাস্টবিন ও ঠেলাগাড়ী রাখার কারনে দাড়ী দাড়ী প্রসাব করতেও দেখা যায়।মাঠের একপাশে পল্লবী থানার জব্দকৃত সকল গাড়ী দখল করে রাখা। মাঠের সামনে ফুটপাত জুড়ে বসেছে একাধিক বাসের কাউন্টার। হাকডাক দিয়ে যাত্রী উঠানামা ও ওয়াবিল কাগজে (চাদা নেওয়া) সই করাতে ব্যস্ত বাসের স্টাফরা। হালকা বৃষ্টি হলেই যেন মাঠের ভিতর সমুদ্রের সৈকতের মত রুপ নেয়। ঘুরে দেখা যায়, মাঠের চারপাশের দেওয়াল কিছু ভেঙে ভেঙে পরে যাচ্ছে।

মুল সড়কের ফুটপাত মাঠের পশ্চিম পাশে ফুটপাত জুড়ে বাসের কাউন্টার ও ময়লার স্থুপ। ঢাকনা ছাড়া ঝুকিপুর্ণ এই ফুটপাতের সড়ক। জনগনের ভুগান্তির শেষ কবে? যে কোন সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

মাঠের পশ্চিম পাশে পানির পাম্প করা হয়েছে উক্ত পাশের দেওয়াল ভাংগা চুরা অবহেলায় ধীরে ধীরে মাঠ ছোট হয়ে আসছে সেদিকে কারু মাথা ব্যাথা নেই। উক্ত মাঠে সকালে খেলতে আসা, মনির, জালাল, মাসুম, সেলিম, নাছিম বলেন, একটু বৃষ্টি হলেই মাঠ যেন পানির মাঠ হয়। আমরা খেলাধুলা করতে পারিনা। মাঠের চারপাশই খুব লোংড়া ও আবর্যনা। সন্ধা হলেই ময়লার ডাস্টবিনের পাশেই চলে ইয়াবা ও গাজা সেবনের ও নিরাপদ ব্যবসা বানিজ্য, পুলিশের দু-চারটি গাড়ী সব সময় যাতায়াত করলেও তা চোখে পড়েনা তাদের। বেড়ে গিয়েছে ছিনতাই চুরি।মুল সড়কের ফুটপাত মাঠের পশ্চিম পাশে ফুটপাত জুড়ে বাসের কাউন্টার ও ময়লার স্থুপ। ঢাকনা ছাড়া ঝুকিপুর্ণ এই ফুটপাতের সড়ক। জনগনের ভুগান্তির শেষ কবে? যে কোন সময় ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা।

মুল সড়কে ঠেলাগাড়ীর সিরিয়াল

এ বিষয়ে, হারুন মোল্লার বড় ছেলে এখলাস উদ্দিন মোল্লা বলেন, সব কিছু তো এমপি দেখবো মাঠের সভাপতি-জানায় নাকি এগুলো? তবে লক্ষ করা যায়, এই মাঠে যেসময় রাজনৈতিক কোন অনুষ্ঠান হয় তখন মাঠ চকচকা থাকে। এলাকাবাসি বলেন, এই মাঠ ছিলো লাল মাঠ নামে পড়ে হারুন মোল্লা ঈদগাহপার্ক ও খেলার মাঠ করা হয়। এই মাঠে পল্লবীর এ-ব্লক ও সি-ব্লকের প্রাই সকল মানুষ খেলতে আসে। মাঠে বৃষ্টির সময় পানি, ও গরমের সময় প্রচুর ধুলো বালি থাকায় খেলাধুলা করতে ভিষন কষ্ট হয় ও ধুলাবালির কারনে প্রায় মানুষ অসুস্থ ও হয়।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

one × 5 =

বাংলাদেশ একাত্তর