অন্যান্য

কিশোরগঞ্জে প্রথম রোজাতেই সবকিছুর দাম চড়া

%e0%a6%95%e0%a6%bf%e0%a6%b6%e0%a7%8b%e0%a6%b0%e0%a6%97%e0%a6%9e%e0%a7%8d%e0%a6%9c%e0%a7%87-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a5%e0%a6%ae-%e0%a6%b0%e0%a7%8b%e0%a6%9c%e0%a6%be%e0%a6%a4%e0%a7%87%e0%a6%87

(কিশোরগঞ্জ) তাড়াইল-প্রতিনিধিঃ
পবিত্র রমজান মাস আসার আগে থেকেই কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলা সদর বাজার থেকে শুরু করে সাত ইউনিয়নের প্রতিটি বাজারেই সবজি, মাছ, মাংসের দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছেন বিক্রেতারা। এ ছাড়া নতুন করে চার পণ্য দরবৃদ্ধির তালিকায় যুক্ত হয়েছে। বেড়ে গেছে পিয়াজ, রসুন, আদা ও চিনির দাম। আগে থেকেই সবজি থেকে শুরু করে বিভিন্ন নিত্যপণ্যের দাম ছিল চড়া। ফলে বাজারে ক্রেতাদের জন্য স্বস্তির খবর নেই।
এ অবস্থায় রমজান শুরু হওয়াতে ক্রেতাদের অস্বস্তি ও শঙ্কা অনেকগুণ বেড়ে গেছে। তবে বাজারে প্রতিটি পণ্যের দাম বৃদ্ধির পেছনে রয়েছে আলাদা অজুহাত। বেশ কয়েকজন
খুচরা সবজি বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারি বাজারে দাম বেশি হওয়ায় তাদের বেশি টাকায় পণ্য কিনতে হচ্ছে। আর পাইকারি বিক্রেতাদের দাবি, শিলাবৃষ্টির কারণে ক্ষেতের সবজি নষ্ট হওয়ায় এ অবস্থা তৈরি হয়েছে। রমজানের কারণে নয়।
তাড়াইল উপজেলা সদর বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারে নতুন করে দেশি পিয়াজের দাম ৫ টাকা বেড়ে ৪০ টাকা দরে উঠেছে। আদা ও রসুনের দাম বেড়েছে কেজি প্রতি কমপক্ষে ২০ টাকা। প্রতি কেজি আদা ১২০ থেকে ১৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। আর রসুনের দাম উঠেছে ১০০ টাকার ওপরে, যা কয়েক দিন আগে ৮০ টাকা ছিল। বিভিন্ন দোকানে বাড়তি দামে চিনি বিক্রি করতে দেখা গেছে। প্রতি কেজি চিনির দাম নেওয়া হচ্ছে ৫৫-৬০ টাকা। কয়েক দিন আগেও যা ৫২-৫৩ টাকায় বিক্রি হতো।
অন্যদিকে মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) উপজেলা সদর বাজার ঘুরে দেখা যায়, আলু, পেঁপে ও পটোলের মতো কিছু সবজি ছাড়া অধিকাংশ সবজি বিক্রি হচ্ছে প্রতি কেজি ৮০ টাকার ওপরে। পটোল, টমেটো, শিম, বেগুনের দাম ৫০-৬০ টাকা।
এদিকে গরুর মাংস আগের মতো বিক্রি হয়েছে ৫৫০ টাকা দরে। খাসির মাংসের দর প্রতি কেজি ৭৫০ থেকে ৮০০ টাকা। কমেনি মুরগি ও ডিমের দাম, প্রতি কেজি দেশি মুরগি ৪০০ টাকা, ফার্মের মুরগি ১৬০ টাকা, সোনালি জাতের মুরগি ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। তা ছাড়াও খোলা পরিবেশে রোজাদারদের জন্য বিক্রি করা হচ্ছে অস্বাস্থ্যকর  ইফতারি বিভিন্ন রসালো খাবার।

উপজেলার সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের জোড়ালো দাবি, আইন-শৃংখলা বাহিনী যেন পুরো রমজান মাস বাজার মনিটরিং এর ব্যবস্হা করেন এবং খাদ্য ভেজালমুক্ত অভিযান পরিচালনা করেন।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

eighteen + eighteen =

বাংলাদেশ একাত্তর