সারাদেশ

সিলেট ফেঞ্চুগঞ্জ “পিপি এম উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দুইদিন ব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান

%e0%a6%aa%e0%a6%bf%e0%a6%aa%e0%a6%bf%e0%a6%8f%e0%a6%ae-%e0%a6%89%e0%a6%9a%e0%a7%8d%e0%a6%9a-%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%a6%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a6%af%e0%a6%bc%e0%a7%87%e0%a6%b0

(বাংলাদেশ একাত্তর.কম)

রেজাউল করিম লিমন: ফিরে যাই এই শৈশবে মেতে উঠি উৎসবে, এই স্লোগানকে ধারণ করে সিলেট জেলার ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার “পি’পি’এম” উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিশাল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যে জানুয়ারি ১০ ও ১১, ২০২০ইং তারিখে দুইদিন ব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

পিপিএম” উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের উদ্যোগে ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে দুইদিন ব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠান-২০২০।

পরে আনন্দ রেলির মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয় সকাল ১০ টায় জাতীয় সংগীত এর সাথে জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং বেলুন উড়িয়ে মূল অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন, আহমেদ উস সামাদ চৌধুরী জে পি। পরে শুরু হয় আলোচনা সভা স্মৃতিচারণ বক্তব্য রাখেন উদযাপন কমিটির সভাপতি প্রধান অতিথি ফেঞ্চুগঞ্জের শ্রেষ্ঠ করদাতা শ্রেষ্ঠ শিক্ষক এবং আরো অনেকে। বেচ পরিচিতি এবং মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ছিল প্রথম দিনের আয়োজনে।

এক পর্যায়ে আসে ২০০২ ব্যাচ, সুসজ্জিত ব্যাচমেটরা বিশাল আকারের কেক নিয়ে ব্যান্ড পার্টির বাজনার তালে তালে স্টেজে উঠে তারা। বাইরের আকাশে তখন চলছে আতশবাজির খেলা। একে একে হয় পরিচিতি পর্ব। সাত সমুদ্র তেরো নদী পার হয়ে আসেন আমির হাসান চৌধুরী সাহান হোসেন রুনা, প্রোগ্রামের লাইভে আমেরিকা আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্য থেকে অংশগ্রহণ করেন ২০০২ ব্যাচ এর সুমন, রাহাত, বন্না, রুমন, ফরহাদ ও পারভেজসহ এমন আরো অনেক বন্ধুরা। দেশের ভেতরে যার যার অবস্থান থেকে শত ব্যস্ততার মাঝেও পরিবার নিয়ে অংশগ্রহণ করেন তারা হলেন, তাহমিনা, জেনি লাকি, রুমা, শিল্পি, লাভলী, লিজি, আয়েশা, শেখ রেজাউল করিম হাসান ও তার পরিবার, শিপলু পলাশ শিহাব টিটু হোসেন মোহন লিমন রাজন কৃষণ রতন লিটু বাবু আপন পীযূষ শহিদুল মঞ্জু লাকু মানিক,হাবিব, আমিনুল, ভূবন, শিপু সেলিম, আরো অনেকে।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে অতিথিদের আনন্দ দিতে ২০০২ ব্যাচ এর ও একটি অসাধারণ স্টেজ পারফরম্যান্স ছিল। যা দর্শকদের অনেক আনন্দ দিয়েছিল। ২০০২ ব্যাচ এর উদযাপন ছিল চোখে পড়ার মতো দুই দিনব্যাপী অনুষ্ঠানে দ্বিতীয় দিনে ছিল সিনিয়র ও জুনিয়র দের সাথে ফটো সেশন।

শিক্ষক শিক্ষিকা ও সবার সাথে কুশল বিনিময় বন্ধুদের সাথে কোলাকুলি দোয়া নেয়া স্মৃতিচারণ এবং সম্মাননা প্রদানে ও দেওয়া হয় প্রীতি উপহার। বাদ যাননি স্কুলের দপ্তরি রা ও। এক কথায় বলা যায় যে ২০০২ ব্যাচ-ই আনন্দ উদযাপনের সেরা ব্যাচ।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

বাংলাদেশ একাত্তর