বৃহস্পতিবার , ২৪ জানুয়ারি ২০১৯ | ১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অপরাধ
  2. অর্থনীতি
  3. আইন ও আদালত
  4. আন্তর্জাতিক
  5. খেলাধুলা
  6. জাতীয়
  7. তথ্য-প্রযুক্তি
  8. ধর্ম
  9. বিনোদন
  10. বিশেষ সংবাদ
  11. রাজধানী
  12. রাজনীতি
  13. লাইফস্টাইল
  14. শিক্ষা
  15. শিল্প ও সাহিত্য

তাড়াইল উপজেলার কুলেছা আক্তারের ৮০ বছর হলেও মিলছেনা বয়স্ক ভাতা!

প্রতিবেদক
bangladesh ekattor
জানুয়ারি ২৪, ২০১৯ ৬:৪৫ অপরাহ্ণ

  তাড়াইল উপজেলার কুলেছা আক্তারের ৮০ বছর হলেও মিলছেনা বয়স্ক ভাতা!

সুব্রত চক্রবর্তী (তাড়াইল  (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: 
কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার-৩নং ধলা, ইউনিয়নের- ৬নং ওয়ার্ডের মৃত ছোরাব আলী ভূঁইয়ার  বিধবা স্ত্রীর বয়স প্রায় ৮০ হলেও এখনও জোটেনি বয়স্ক ভাতার একটি কার্ড ।
তারাইল উপজেলার আদিবাসী বৃদ্ধা কুলেছা আক্তারের ভাগ্যে ৮০ বছর বয়সেও জোটেনি বয়স্ক ভাতার কার্ড। আর কত বয়স হলে তিনি বয়স্ক ভাতা পাবেন- এমন প্রশ্ন তার সকলের কাছে। বিধবা-বয়স্ক এই নারী বলেন, মরণ আমাকে কখন যে ডাক পাড়ে ঠিক নেই, সরকার নাকি বয়স্ক মানুষের জন্য বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা দেন, তা আমার আর কত বয়স হলে ভাতার কার্ড দিবে?। কত বার গিয়েছি চেয়ারম্যান, মেম্বারের কাছে তারা আমার কোন কথাই শোনেনা।আর তাদের বেশির ভাগ সময় পাওয়া ও যায় না।এখন চলতে ফিরতে আমার অনেক কষ্ট হয় বয়সের ভারে।

এই সেই কুলেছা আক্তার বয়স ৮০ সরকার নাকি বয়াস্ক মানুষের জন্য বয়াস্ক / বিধবা ভাতা দেন তা আমার আর কত বয়স হলে ভাতার কার্ড দিবে।

জানা যায় যে, স্বামীহারা বিধবা, বয়স্ক কুলেছা আক্তারের দিন কাটছে খুব কষ্টে। অসহায়ত্ব লাঞ্ছনা যার নিত্য সংঙ্গী, বিশেষ করে অর্থনৈতিক কষ্টে মানবেতর জীবন যাপন করে যাচ্ছেন দীর্ঘদিন ধরে। কুলেছা আক্তারের একমাত্র মেয়ে ফাতেমা আক্তারকে বিয়ে দিয়েছেন একই ওয়ার্ডের হোসেন আহমেদের কাছে।স্বামী সংসার নিয়ে আলাদা বসবাস করছেন মেয়ে ফাতেমা। কুলেছা আক্তার  জানান, এতবছর বয়সেও তিনি কোনো বয়স্কভাতা পাননি। এমনকি সরকারিভাবে দেয়া সব সাহায্য-সহযোগিতা থেকেও বঞ্চিত তিনি। জীবনের শেষ প্রান্তে এসে তাকে দেখার যেন কেউ নেই। অসহায় কুলেছা আক্তার  বয়স্কভাতার সুবিধা পেতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলার ধলা-ইউনিয়নের ৬নং নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সবুজ মিয়া বলেন, কুলেছার বিষয়টি আমার জানা ছিল না। বয়স্কভাতা কার্ডের জন্য তিনি কখনো আমার কাছে আসেননি। যদি আসতেন তাহলে ব্যবস্থা করে দিতাম। তিনি আরও বলেন, সামনে বয়স্কভাতার কার্ড আসলে আমি কুলেছার জন্য বয়স্কভাতা পাওয়ার ব্যবস্থা করবেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৩নং- ধলা ইউনিয়নের ৬নং- ওয়ার্ডের এক বাসিন্দা বলেন, প্রতিবন্ধী ভাতা, বিধবা ভাতা, বয়স্ক ভাতাসহ অন্যন্য সযোগ সুবিধা থেকেও বঞ্চিত রয়েছে দেশের সাধারণ নাগরিক।এমন শত শত কুলেছা আক্তারের মত বিধবা/ বয়স্ক অসহায় মানুষ সরকারি অনুদান থেকে বঞ্চিত রয়েছে তার খবর কে রাখে। সরকারি অনুদান তারাই  ভাগ পায় যারা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের ঘনিষ্ট। যাদের অভাব অনটন নেই বললেই চলে তারাই সুবিধা ভোগ করে বেশি।

বর্তমানে প্যারালাইসিস এর রোগী কুলেছা হাটতে পারেন না । কুলেছা আক্তার আরো জানান, অনেকবার চেষ্টা করেও অজ্ঞাত কারণে ভাতা থেকে বঞ্চিত।স্বাধীনতা যুদ্ধের আগের বছর স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকেই জীবনের সাথে যুদ্ধ করে একমাত্র মেয়েকে বিয়ে দিয়ে এখন সর্বশান্ত।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় পরিচয় পত্র অনুযায়ী কুলেছা আক্তারের জন্ম ২ মার্চ ১৯৪০ খ্রিষ্ঠাব্দ।এলাকাবাসী দাবি,  কুলেছা আক্তারকে বয়স্ক ভাতাসহ অন্যন্য সযোগ সুবিধা দেওয়া হোক।

সর্বশেষ - রাজনীতি

আপনার জন্য নির্বাচিত

‘বার ড্যান্সার’ জান্নাতের ফাঁদে বহুপুরুষ নিঃস্ব!

সবার হোক একটাই পণ’ কিশোর গ্যাং করবো দমন’

সাংবাদিক রাজু আহম্মেদের বাবা মোস্তফা শেখ “আর নেই”

আওয়ামীলীগের ২৯৮ জন মনোনয়ন পেয়েছেন যারা

অনলাইন বাজার এখন সুনামগঞ্জে ; ১ ঘন্টার মধ্যে ডেলিভারি সহ আকর্ষনীয় অফার

মিথ্যা মামলায় আটক স্বামীর মুক্তির দাবীতে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

পদ্মাসেতুর কাজ দ্রুত গতিতে চলছে

বিশ্বম্ভরপুরে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে সহোদর দুই ভাইয়ের তান্ডব: দিশেহারা সাধারণ মানুষ

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের মুক্তির দাবিতে মিরপুর প্রেসক্লাবের মানববন্ধন

মিরপুরে গার্মেন্ট শ্রমিকদের বকেয়া বেতনের দাবিতে সড়ক অবরোধ