আইন ও আদালত, সারাদেশ

জয়দেবপুরে ৭৮৩০ পিস ইয়াবাসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার, প্রাইভেটকার জব্দ

%e0%a6%9c%e0%a7%9f%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%ac%e0%a6%aa%e0%a7%81%e0%a6%b0%e0%a7%87-%e0%a7%ad%e0%a7%ae%e0%a7%a9%e0%a7%a6-%e0%a6%aa%e0%a6%bf%e0%a6%b8-%e0%a6%87%e0%a7%9f%e0%a6%be%e0%a6%ac%e0%a6%be

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজধানীর কালাচাঁদপুরে ৭,৮৩০ পিস ইয়াবাসহ ৫ মাদক ব্যবসায়ীকে গেস্খফতার করেছে র‌্যাব-১ এর আভিযানিক দল। এসময় তাদের কাছে থাকা ০৬ টি মোবাইল ফোন ও মাদক বিক্রয়ের নগদ ৪,৫০,৩০০/- টাকা উদ্ধার করা হয় এবং মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত প্রাইভেটকারটিও জব্দ করা হয়।
আজ (২৬ মার্চ ২০১৯) সাড়ে সাতটার দিকে জয়দেবপুর থানাধীন ঢাকা-ময়মনসিংহ রোডস্থ মোম্বা বাড়ী বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে তাদেরকে গেস্খফতার করা হয়।

গেফতারকৃতরা হলেন: রিপন কান্তি চাকমা (৩৫), মোঃ ইসমাইল হোসেন (৪৫), মোঃ নুরুল ইসলাম (৩৫), ) সামু সিং (২৫) ও মোসাঃ আয়শা আক্তার আশা (১৯)।

রিপন জানায়, বিগত ২২ বছর আগে কাজের সন্ধানে কক্সবাজার হতে ঢাকা আসে। ঢাকায় আসার পর সে গার্মেন্টস হতে কাপড় সংগ্রহ করে রাজধানীর ফুটপাতে বিক্রি করে। বিগত ০১ বছর পূর্বে চট্টগ্রামের মাদক ব্যবসায়ী আমিন এর সাথে তার পরিচয় হয়। আমিন তাকে ঢাকায় মাদক বিক্রির কাজে সহযোগিতা করতে বললে, অধিক টাকার লোভে সে আমিনের প্রস্তাবে রাজি হয়ে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। আমিন চট্টগ্রাম হতে মাদকের চালান ঢাকায় রিপনের বাসায় নিয়ে আসত। রিপনের বাসা থেকে ঢাকা ও তার আশে পাশের মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট তা হস্তান্তর করত। উল্লেখিত ইয়াবার চালানটি রিপনের প্রাইভেটকারে করে চট্টগ্রাম হতে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়।

গ্রেফতারকৃত ইসমাইল জানায়, সে যশোর শহরে ইজিবাইক চালাত। বিগত ০১ বছর পূর্বে ঢাকায় এসে মোল্লারটেকে কলা ব্যবসা শুরু করে। গ্রেফতারকৃত আসামী রিপনের মাধ্যমে বিগত ০৬ মাস পূর্বে সে মাদক ব্যবসায় জড়িয়ে পড়ে। সে কক্সবাজার হতে ইয়াবার চালান গাড়ীতে করে ঢাকায় নিয়ে আসত। ঢাকা আনার পর তা রিপনের নিকট হস্তান্তর করত।

জানা যায়, আয়েশার স্বামী একজন ট্রাকের হেলপার। বিগত ০৬ মাস ধরে স্বামীর সাথে পারিবারিক কলহ চলতে থাকায় সে কাজের সন্ধানে ঢাকায় আসে। গ্রেফতারকৃত আসামী ইসমাইল তাকে বিয়ের ও কাজের প্রতিশ্র“তি দিয়ে ঢাকায় নিয়ে আসে। তারা দুজন কালাচাঁদপুরের বাসায় স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে থাকলেও তাদের কোন বিবাহ হয়নি। ইসমাইল তাকে কাজের কথা বলে ইয়াবা ব্যবসায় যুক্ত করে। উল্লেখিত ইয়াবার চালানটি তারা দুজন কক্সবাজার থেকে নিয়ে এসেছে বলে জানায়।

জানা গেছে, নুরুল ইসলাম পেশায় একজন কলা বিক্রেতা। বিগত ০৪ বছর ধরে সে ঢাকার মোল্লারটেকে কলা ব্যবসা করে থাকে। গ্রেফতারকৃত আসামী ইসমাইল সম্পর্কে তার বিয়াই হয়। সে ইসমাইলের মাধ্যমে নিজেকে মাদক ব্যবসায় সাথে যুক্ত করে। সে এলাকায় মাদকের খুচরা বিক্রেতা।

মামুন সিং জানায়, পেশায় তিনি একজন মধু বিক্রেতা। বিগত ১১ বছর ধরে সে বরিশালে মধু বিক্রি করে আসছে। গ্রেফতারকৃত আসামী রিপন সম্পর্কে তার জেঠাত ভাই হয়। রিপন তাকে অধিক টাকার লোভ দেখিয়ে মাদক ব্যবসায় যুক্ত করে। সে এলাকায় মাদকের খুচরা বিক্রেতা।
উদ্ধারকৃত মাদকদ্রব্য এবং গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

Print Friendly, PDF & Email
Comments
Share

bangladesh ekattor

বাংলাদেশ একাত্তর.কম

Reply your comment

Your email address will not be published. Required fields are marked*

five + 10 =

বাংলাদেশ একাত্তর